শিরোনাম

বগুড়ায় দুইদিনের রিমান্ড শেষে আইনজীবী সহকারীকে কারাগারে প্রেরণ


কোর্ট রিপোর্টার : বগুড়ায় আদালতের সামনে পুলিশের কাজে ইচ্ছাকৃত বাঁধা ও আঘাত দানের মামলায় এমরান হোসেন (৩০) নামে এক আইনজীবী সহকারীকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। আসামী এমরান হোসেন বগুড়া সদর থানার বুজুর্গধামা মধ্যপাড়ার আকতারুজ্জামানের পুত্র এবং বগুড়া আইনজীবী সহকারী সমিতির সদস্য। দুই দিনের পুলিশ রিমান্ড শেষে আজ রোববার দুপুরে এমরান হোসেনকে আদালতে হাজির করা হয়। এসময় আসামী এমরানের পক্ষে বিজ্ঞ আদালতে লিখিতভাবে জামিন আবেদন করেন তার আইনজীবী অ্যাডভোকেট মনি খাতুন শিমু।

জেলা বগুড়ার জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট-২ আদালতের বিচারক বেগম সুমাইয়া সিদ্দিকা আগামী ২৭ নভেম্বর উক্ত দরখাস্ত শুনানীর দিন ধার্য্য করায় আদালতের নির্দেশে আসামী এমরানকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন বগুড়া কোর্ট পুলিশ পরিদর্শক মোছাদ্দেক হোসেন।

জামিনের দরখাস্ত দাখিল করে দরখাস্ত শুনানীর জন্য বগুড়া বারের সিনিয়র আইনজীবী অ্যাডভোকেট রেজাউল করিম মন্টুসহ কমপক্ষে ২০জন আইনজীবী এজলাসে বসে থাকেন। এছাড়াও বগুড়া আইনজীবী সহকারী সমিতির কমপক্ষে ৫০ জন মহরারদেরকে আদালতের বারান্দায় দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায়। আসামী এমরান হোসেনকে আদালতে হাজির করা হলে আদালত পাড়ায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন থাকতে দেখা যায়।

গত ১৬ নভেম্বর সকাল অনুমান সোয়া ১০টায় জেলা বগুড়ার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলী আদালত-১ ৭ম তলায় এজলাসের সামনে হট্টগোল করতে নিষেধ করায় এমরান হোসেন আকন্দ নামে একজন আইনজীবী সহকারী ইচ্ছাকৃতভাবে ওই নারী পুলিশকে সরকারী কাজে বাঁধাদানসহ আঘাত করে গুরুতর জখম করে। এ ঘটনায় তিনি বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়ে ১৭ নভেম্বর বগুড়া সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। অভিযোগ পেয়ে পুলিশ এমরান হোসেনকে তার বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বগুড়া সদর থানার এস আই রহিম উদ্দীন আসামীকে ৫ দিনের রিমান্ডের আবদেন করলে আদালত দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।


Check Also

বগুড়ায় তুচ্ছ ঘটনায় ইন্টার্ন চিকিৎসক ছুরিকাহত

স্টাফ রিপোর্টার : বগুড়ায় শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালের ইন্টার্ন চিকিৎসক ফাহিম রহমানকে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.