শিরোনাম

বগুড়ায় বণ্যপাখি সংরক্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ১, ৩১৪টি পাখি অবমুক্ত


দুপচাঁচিয়া (বগুড়া) প্রতিনিধি : বগুড়ার দুপচাঁচিয়ায় অবৈধভাবে বন্যপাখি সংরক্ষণের অভিযোগে আতোয়ার আলী সাকিদার (৫২) নামের এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বগুড়ার পুলিশ সুপার সুদীপ কুমার চক্রবর্ত্তী বিপিএম সেবা এর সার্বিক দিক নির্দেশনায় আদমদীঘি সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার নাজরান রউফের তত্ত্বাবধানে বগুড়া ডিবি পুলিশের ইনচার্জ সাইহান ওলিউল্লাহের নেতৃত্বে গতকাল সোমবার রাত পৌনে ৯টায় ডিবির একটি টিম অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করে। গ্রেপ্তারকৃত আতোয়ার উপজেলার গুনাহার ইউনিয়নের ডাঙ্গাপাড়া গ্রামের মৃত অছিমুদ্দিন সাকিদারের ছেলে। আতোয়ার আলীকে বন্যপ্রানি সংরক্ষণ আইনে দুপচাঁচিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সুমন জিহাদী তার ৬মাস বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন। সেই সঙ্গে জব্দকৃত ৩১৪টি পাখি মুক্ত পরিবেশে অবমুক্ত করা হয়।

এব্যাপারে মঙ্গলবার দুপুরে দুপচাঁচিয়া থানা চত্বরে বগুড়া পুলিশ সুপার সুদীপ কুমার চক্রবর্ত্তী বিপিএম সেবা এক প্রেস ব্রিফিং করেছেন। প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি বলেন, উক্ত আতোয়ার দীর্ঘ ৯-১০ বছর যাবত অবৈধভাবে লাভবান হওয়ার উদ্দেশ্যে বাংলাদেশের বিভিন্ন সীমান্তবর্তী এলাকা সহ বিভিন্ন এলাকা এলাকা হতে বিভিন্ন প্রজাতির বন্যপ্রাণি আটক করে রাজধানী সহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় চড়া দামে বিক্রয় করে আসছিল। ঘটনারদিন রাতে আতোয়ারের নিকট থেকে উদ্ধারকৃত বন্যপাখি ফুলমাথা টিয়া (ব্লোসম হেডেড প্যারাকিট) ১৪০টি, লালমাথা টিয়া (পাম হেডেড প্যারাকিট) ৪০টি, তিলা মুনিয়া পাখি ৫০টি এবং দেশী চাদী ঠোঁট মুনিয়া ৮৪টি সহ মোট ৩১৪টি পাখি চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জ থানাধীন ধুকপুকুর সীমান্তবর্তী এলাকা হতে আতোয়ার নিজে সংগ্রহ করে বিক্রয়ের জন্য নিজ বাড়িতে সংরক্ষণ করে রেখেছিলেন। আতোয়ার আরও জানান এই মৌসুমে নানা প্রজাতির পাখি ভারত থেকে খাদ্য আহরণের জন্য বাংলাদেশে আসলে তিনি নানা রকম কৌশলে প্রতি বছরই প্রচুর হিরামন টিয়া ও মুনিয়া পাখি সহ অন্যান্য পাখি ধরে নিয়ে এসে সংরক্ষণ করে রাজধানী সহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় বাজারজাত করেন। প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি আরও বলেন, প্রকৃতপক্ষে বন্যপাখি কেনাবেচা ও সংরক্ষণ বন্যপ্রাণি (সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা) আইন ২০১২ অনুযায়ী আইনত দন্ডনীয় অপরাধ। এসব পাখি যেন বিলুপ্ত না হয় সে লক্ষ্যে বগুড়া জেলা পুলিশ এই ধরনের অভিযান চলমান রাখবে এবং বন্যপাখি ক্রয়বিক্রয় ও সংরক্ষণ বন্ধের জন্য সবাইকে সচেতন থাকার আহবান জানান। প্রেসব্রিফিংয়ে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সুমন জিহাদী, আদমদীঘি সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার নাজরান রউফ, বন্যপ্রাণি ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগ রাজশাহী বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা আহম্মেদ নিয়ামুর রহমান, বগুড়া জেলা ডিবির ইন্সপেক্টর সাইহান ওলিউল্লাহ, দুপচাঁচিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ আবুল কালাম আজাদ, পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) আব্দুর রশিদ সরকার প্রমুখ।


Check Also

বগুড়ায় দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে আহত ১৬

দুপচাঁচিয়া (বগুড়া) প্রতিনিধি : বগুড়ার দুপচাঁচিয়ায় দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে নারীসহ ১৬ জন আহত হয়েছেন। …

Leave a Reply

Your email address will not be published.