শিরোনাম

বগুড়ায় হত্যাকান্ডের দুই যুগ পর রায়, ৭ জনের যাবজ্জীবন


কোর্ট রিপোর্টার : বগুড়ায় দুই যুগ আগের পৃথক দুইটি হত্যাকান্ডের ঘটনায় দায়ের করা মামলায় রায় ঘোষণা করেছে আদালত। দুইটি হত্যা মামলায় সাতজনকে যাবজ্জীবন কারাদন্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালতের বিচারক। আজ বুধবার দুপুরে বগুড়ার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালত ২ ও ৩ এর বিচারক রায় ঘোষণা করেন।

জানা যায়, ১৯৯৮ সালের ২৮ অক্টোবর রাতে বগুড়ার শিবগঞ্জের বিল হামলা গ্রামের একটি চাতালের নৈশপ্রহরী আব্দুল জব্বারকে হত্যা করা হয়। স্থানীয় ওই চাতালে থাকা যন্ত্রপাতি লুটপাট করতে এ ঘটনা সংগঠিত হয়। পরবর্তীতে পুলিশ ঘটনায় দায়ের করা মামলা তদন্ত শেষে ছয়জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন। এ ঘটনায় দীর্ঘ ২৪ বছর পর ছয়জনকে যাবজ্জীবন ও ৫ হাজার টাকা অর্থদন্ড দেয় আদালত। অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালত-৩ এর বিচারক রুবাইয়া ইয়াছমিন এ রায় ঘোষণা করেন।

মামলায় যাবজ্জীবন কারাদন্ড প্রাপ্তরা হলেন, আফজাল হোসেন তার ভাই জাহিদুল ইসলাম, সাইফুল আলম, গোলজার রহমান, আছমা বেগম ও আলম ফকির। এর মধ্যে আছমা বেগম ও আলম ফকির পলাতক আছেন। বাকিরা রায় ঘোষণার সময় আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

অপরদিকে কাহালুর লীমন্ডপ গ্রামে ১৯৯৬ সালের ৮ আগস্ট স্থানীয় পুকুর নিয়ে দ্বন্দ্বের জেরে মজিবর নামের এক কৃষককে মারপিটের পর কুড়াল দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় ১৯ জনকে অভিযুক্ত করে মামলা দায়ের করা হয়। পুলিশ পরে ১৮ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করেন৷ এর মধ্যে মামলা চলাকালীন সময়ে দু’জন মারা যান।

দীর্ঘ ২৬ বছর পর এ মামলায় তসলিম উদ্দিনকে (৭০) যাবজ্জীবন কারাদন্ড ও ২০ হাজার টাকা অর্থদন্ড দেয় আদালত। এছাড়াও মামলার অন্য ১৫ আসামিকে খালাস দেওয়া হয়। অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালত-২ এর বিচারক মুহাম্মাদ কামরুল হাসান রায় ঘোষণা করেন।

বগুড়া আদালতের অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাড: বিনয় কুমার দাস বিশু বলেন, পৃথক দুই মামলায় সাতজনকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছে আদালত। এর মধ্য দিয়ে দীর্ঘ দুই যুগ পর হত্যাকান্ড দুইটির বিচার কার্য সম্পন্ন হয়েছে।


Check Also

বগুড়ায় দুইদিনের রিমান্ড শেষে আইনজীবী সহকারীকে কারাগারে প্রেরণ

কোর্ট রিপোর্টার : বগুড়ায় আদালতের সামনে পুলিশের কাজে ইচ্ছাকৃত বাঁধা ও আঘাত দানের মামলায় এমরান …

Leave a Reply

Your email address will not be published.