শিরোনাম

ব্রুনাইয়ের সুলতানের সঙ্গে শীর্ষ বৈঠক কাল, প্রস্তুত ৫ চুক্তি-সমঝোতা


বগুড়া ডেস্ক : ব্রুনাই দারুসসালামের সুলতান হাজি হাসানাল বলকিয়াহ মুইজ্জাদ্দিন ওয়াদ্দৌলাহ আজ শনিবার দুই দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে বাংলাদেশে এসেছেন। বিমানবন্দরে তাকে স্বাগত জানান বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ। সুলতান ও তার সফরসঙ্গীদের বহনকারী রয়েল ব্রুনাইয়ের একটি বিশেষ বিমান আজ বেলা ২টা ২৪ মিনিটে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে। সেখানে তাকে স্বাগত জানাতে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে ছিলেন মন্ত্রিসভার জ্যেষ্ঠ সদস্য, উচ্চপদস্থ বেসামরিক ও সামরিক কর্মকর্তারা। বিমানবন্দরে সুলতানকে লালগালিচা সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছে। অভ্যর্থনা অনুষ্ঠানের অংশ হিসেবে বিমানবন্দরে বাংলাদেশ সেনা, নৌ ও বিমানবাহিনীর চৌকস দল ২১ বার তোপধ্বনিসহ সুলতানকে গার্ড অব অনার প্রদান করে। ব্রুনাইয়ের রাজ পরিবারের সদস্য, সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী এবং উচ্চপর্যায়ের কর্মকর্তারা সুলতানের সফরসঙ্গী হিসেবে ঢাকায় এসেছেন।

বিমানবন্দরে অভ্যর্থনা অনুষ্ঠানের পর সুলতান রাজধানীর উপকণ্ঠে সাভারে জাতীয় শহীদ স্মৃতিসৌধে যান। সুলতান সাভারে জাতীয় স্মৃতিসৌধে ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের ৯ মাসের রক্তক্ষয়ী স্বাধীনতাযুদ্ধের বীর শহীদদের স্মরণে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। সেখানে তিনি একটি চারা গাছ রোপণ এবং দর্শনার্থী বইয়ে সই করেন। সন্ধ্যা ৬টায় সুলতানের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। এরপর সন্ধ্যায় সুলতান রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের সঙ্গে বঙ্গভবনে বৈঠক করবেন। রাতে বঙ্গভবনের দরবার হলে সুলতানের সম্মানে রাষ্ট্রীয় নৈশভোজ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করবেন রাষ্ট্রপতি। রোববার সকালে সুলতান জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্মৃতি জাদুঘর পরিদর্শন করবেন। সেখান থেকে তিনি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে যাবেন। সুলতানকে স্বাগত জানাবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেখানে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সুলতানের দ্বিপাক্ষিক বৈঠক হবে। এ শীর্ষ বৈঠকের পর দুদেশের মধ্যে সহযোগিতা সম্প্রসারণে বেশকিছু চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক সই হবে। সন্ধ্যায় ঢাকা সফর শেষে সুলতান ব্রুনাই ফিরবেন।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, বিশ্বের অন্যতম ধনী রাষ্ট্রের সুলতানের সফরকে বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছে সরকার। তার সফরকালে বাংলাদেশ ও ব্রুনাইয়ের মধ্যে কমপক্ষে ৫টি চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক সইয়ের প্রস্তুতি চলছে। এর মধ্যে রয়েছে সরাসরি বিমান চলাচল চুক্তি, জ্বালানি আমদানি, বাংলাদেশি কর্মী নিয়োগ ও দুই দেশ কর্তৃক নাবিকদের সার্টিফিকেটের স্বীকৃতি সংক্রান্ত সমঝোতা স্মারক। এ ছাড়াও ব্রুনাইয়ের সঙ্গে প্রতিরক্ষা, দ্বৈত কর পরিহার, বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বিষয়ে দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতা নিয়ে আলোচনা হবে।

জানা গেছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে সুলতানের শীর্ষ বৈঠকে সে দেশে বাংলাদেশি কর্মী নিয়োগ, জ্বালানি, বাণিজ্য ও বিনিয়োগ, কৃষি, মৎস্য, হালাল খাবার ও সাংস্কৃতিক সহযোগিতা আলোচনায় প্রাধান্য পাবে। এ ছাড়াও সুলতানের সফরে রোহিঙ্গা ইস্যু গুরুত্বের সঙ্গে আলোচনা করবে বাংলাদেশ। ব্রুনাই আসিয়ানের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য। বাংলাদেশ রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনে আসিয়ানের জোরালো ভূমিকা চাইবে। বর্তমান মিয়ানমার পরিস্থিতি ও জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গাদের মানবিক কারণে আশ্রয় দেওয়ার কারণে বাংলাদেশ যেসব সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছে, তা তুলে ধরে দ্রুত রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের পাশাপাশি আসিয়ান জোটের ডায়ালগ অংশীদার হতে ব্রুনাইয়ের সহযোগিতা চাইবে সরকার।

ইউক্রেন যুদ্ধের পরিস্থিতিতে বিশ্বজুড়ে জ্বালানি তেলের সংকট চলছে। সে কারণে ব্রুনাই থেকে জ্বালানি তেল আমদানি করতে আগ্রহী বাংলাদেশ। ব্রুনাইয়ের তেল-গ্যাসসহ জ্বালানির বিপুল রিজার্ভ রয়েছে। গত ৩১ আগস্ট দুই দেশের মধ্যে পররাষ্ট্র সচিব পর্যায়ের দ্বিতীয় বৈঠক ফরেন অফিস কনসালটেশন (এফওসি) অনুষ্ঠিত হয়। পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেনের ব্রুনাই সফরকালে সুলতানের বাংলাদেশ সফরের বিষয়টি চূড়ান্ত করার পাশাপাশি জ্বালানি আমদানির ব্যাপারেও আলোচনা করেন। বর্তমানে ব্রুনাইয়ে প্রায় ২৫ হাজার বাংলাদেশি বিভিন্ন খাতে কর্মরত আছেন। বাংলাদেশ থেকে আরও কর্মী নিয়োগের বিষয়ে আলোচনা হবে।


Check Also

কুড়িগ্রামে বেড়েছে শীত, হেডলাইট জ্বালিয়ে চলছে যানবাহন

কুড়িগ্রাম জেলা প্রতিনিধি : উত্তরের সীমান্তঘেঁষা জেলা কুড়িগ্রামে শীত বেড়েছে। হিমালয়ের নিকটবর্তী হওয়ায় গ্রামাঞ্চলসহ শহরের …

Leave a Reply

Your email address will not be published.