শিরোনাম

ভোলায় সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ ছাত্রদল সভাপতির মৃত্যু


বগুড়া ডেস্ক : ভোলায় পুলিশ-বিএনপির সংঘর্ষের ঘটনায় গুলিবিদ্ধ ভোলা জেলা ছাত্রদলের সভাপতি নুরে আলম মারা গেছেন। বুধবার (৩ আগস্ট) বিকেল ৩টা ১০ মিনিটের সময় রাজধানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। সংঘর্ষে আহত হওয়ার পর তিনি ওই হাসপাতালে লাইফ সার্পোটে ছিলেন।

নুরে আলমের ভগ্নিপতি ভোলা জাঙ্গালিয়া স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ রুহুল আমিন জানান, আজ রাত ৮টায় ঢাকা থেকে কর্ণফুলী লঞ্চে মরদেহ ভোলার উদ্দেশ্যে নেওয়া হবে। বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) জানাজা শেষে ভোলা পৌর চরনোয়াবাদ এলাকায় পরিবারিক কবরস্থালে নুরে আলমকে দাফন করা হবে।

গত ৩১ জুলাই রোববার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ভোলা জেলা বিএনপি বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করেছিল। লোডশেডিং ও জ্বালানিখাতের অব্যবস্থাপনার অভিযোগ তুলে ওই বিক্ষোভের আয়োজন করা হয়। বিক্ষোভ সমাবেশের একপর্যায়ে একটি মিছিল নিয়ে সদর রোডে যাওয়ার সময় পুলিশ-বিএনপির সংঘর্ষ বাঁধে।

সংঘর্ষে আব্দুর রহিম নামে এক স্বেচ্ছাসেবক নেতা নিহত হন। সংঘর্ষে বিএনপির অর্ধশতাধিক নেতা-কর্মী ও পুলিশের ১০ সদস্য আহত হন।


Check Also

পুলিশ-বিএনপির সংঘর্ষ, বিএনপির ৪ শতাধিক নেতাকর্মীকে আসামি করে মামলা

বগুড়া ডেস্ক : ভোলায় পুলিশ-বিএনপি সংঘর্ষের ঘটনায় জেলা বিএনপির সভাপতি ও সম্পাদকসহ ৪ শতাধিক নেতাকর্মীর …

Leave a Reply

Your email address will not be published.