শিরোনাম

সফলভাবে গ্রহাণুকে ধাক্কা দিলো নাসার মহাকাশযান


বগুড়া ডেস্ক : পৃথিবীকে রক্ষার পরীক্ষায় ডিমারফোস গ্রহাণুকে সফলভাবে আঘাত করেছে মার্কিন মহাকাশ গবেষণা কেন্দ্র নাসার মহাকাশযান ‘ডার্ট’। ইচ্ছাকৃত এই আঘাত হানার প্রক্রিয়ায় মহাকাশযানটি সঙ্গে সঙ্গেই ধ্বংস হয়ে যায়। পৃথিবীকে হুমকির মুখে ফেলতে পারে এমন সব মহাকাশ শিলাকে নিরাপদে ধাক্কা মেরে তাদের কক্ষপথ বদলে দেওয়া যায় কিনা, তা পরীক্ষার জন্যই ইচ্ছাকৃতভাবে সরাসরি সংঘর্ষের এই পরীক্ষা চালিয়েছে নাসা। শব্দের চেয়েও বেশি গতিতে ছুটে গিয়ে পৃথিবী থেকে ৬৮ লাখ মাইল দূরের গ্রহাণু ডিমারফোসের গায়ে স্থানীয় সময় গতকাল সোমবার (২৬ সেপ্টেম্বর) সফলভাবে আছড়ে পড়ে ডার্ট। মহাকাশযানের সঙ্গে সংঘর্ষের ফলে গ্রহাণুটি ধ্বংস না হলেও নিজের গতিপথ থেকে তাকে কিছুটা সরিয়ে দেওয়াই ছিল নাসার মূল পরিকল্পনা।

ডিমারফোস নামে এই গ্রহাণুটি মূলত ডিডিমস নামের আরেকটি বড় গ্রহাণুকে কেন্দ্র করে প্রদক্ষিণ করছে। নাসার উদ্দেশ্য, মহাকাশযান দিয়ে ধাক্কা মেরে ডিমারফোসের কক্ষপথ সামান্য বদলে দেওয়া। মোটামুটি ১৬০ মিটার চওড়া গ্রহাণুটির সঙ্গে সংঘর্ষের ঠিক আগ মুহূর্ত পর্যন্ত ডার্টের ক্যামেরা প্রতি সেকেন্ডে একটি করে ছবি পাঠিয়েছে পৃথিবীতে। প্রায় ১০মাস আগে এই প্রকল্পকে সফল করতে পৃথিবী থেকে রওনা দেয় নাসার মহাকাশযানটি।

ব্রিটিশ গণমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ানের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, একটি ফুটবল স্টেডিয়াম আকারের ওই গ্রহাণুর সঙ্গে সংঘর্ষের পুরো দৃশ্য ওয়াশিংটন ডিসির বাইরে নাসার মিশন অপারেশন সেন্টার থেকে ওয়েবকাস্ট করা হয়। বিশ্বের প্রথম গ্রহ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার বিষয়টি ভিডিও এবং চিত্রের মাধ্যমে নিশ্চিত করা হলেও টেলিস্কোপের পর্যবেক্ষণ সম্পূর্ণ না হওয়া পর্যন্ত এর সাফল্য নির্ধারণ করা যাবে না। আর এজন্য অপেক্ষা করতে হবে আরও কয়েক সপ্তাহ। তবে, মহাকাশ সংস্থার গ্রহ বিজ্ঞানের পরিচালক ড. লরি গ্লেজ বলেছেন, এতে উল্লেখযোগ্য কিছু অর্জন হয়েছে।

“আমরা মানবজাতির একটি নতুন যুগের সূচনা করছি, এমন একটি যুগ যেখানে আমরা সম্ভাব্য বিপজ্জনক গ্রহাণুর প্রভাব থেকে নিজেদের রক্ষা করতে পারবো। এক আশ্চর্যজনক বিষয় এটি; আগে কখনই এই ক্ষমতা আমাদের ছিলনা,” সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি। ডিডিমোস গ্রহাণুর চারপাশে ডিমারফোসের কক্ষপথের পরিবর্তন গবেষণার পরেই এই সংঘর্ষের সাফল্য নির্ধারণ করবেন বিজ্ঞানীরা। পৃথিবীতে টেলিস্কোপ বা বাইনারি সিস্টেমের মাধ্যমে শিলা দুটিকে সুনির্দিষ্টভাবে পর্যবেক্ষণ করা হবে।

এর আগে, ২০২১ সালের নভেম্বরে ক্যালিফোর্নিয়ার ভ্যানডেনবার্গ এয়ার ফোর্স বেস থেকে স্পেসএক্স ফ্যালকন ৯ রকেটে যাত্রা শুরু করে নাসার মহাকাশযান ডার্ট।


Check Also

৬ তলা বাড়ি সমান গ্রহাণু ধেয়ে আসছে পৃথিবীতে

বগুড়া ডেস্ক : পৃথিবীর দিকে ধেয়ে আসছে এক বিশাল গ্রহাণু। ৬ তলার বাড়ির সমান এই …

Leave a Reply

Your email address will not be published.