শিরোনাম

সোনাতলায় ছুরিকাঘাতে আহত দুই : একজন আটক


সোনাতলা (বগুড়া) প্রতিনিধি : বগুড়ার সোনাতলা উপজেলার মধুপুর ইউনিয়নের হাঁসরাজ গ্রামে তুচ্ছ ঘটনায় উপুর্যপুরি ছুরিকাঘাতে নজরুল ও ফজলু নামের দুই ব্যক্তি আহত হয়েছে। এদের মধ্যে ফজলু সোনাতলা হাসপাতালে চিকিৎস্যাধীন রয়েছে। নজরুলের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় তাকে বগুড়া শজিমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এঘটনায় পুলিশ মোছলেম নামের একজনকে আটক করেছে। রোববার সকাল অনুঃ ৯টায় এঘটনা ঘটেছে।

আহত ঐ দুই ব্যাক্তির স্ত্রী লাভলী ও রুলী বেগম জানায়, আমাদের ছাপরা ঘরের উপর মোসলেম উদ্দিনের কাঠাল গাছের ডাল দীর্ঘদিন ধরে হেলে ছিলো। আমরা একাধিকবার মোসলেমকে ডালপালাগুলো কেটে নিতে বলে আসছিলাম। মোসলেম তা কর্নপাত না করায় আমার স্বামী গত শনিবার ঐ ঘর মেরামত করার সময় অসুবিধা হলে তিনি নিজেই ওই ডালপালা গুলো কেটে দেয়। এতে আমার স্বামী ও ভাসুরের সাথে মোসলেমের কথাকাটাকাটি হয়। ঐঘটনায় মোসলেমের ছেলে মাসুদ ক্ষিপ্ত থাকে। পরের দিন ২৬ জুন সকালে ্আমাদের উভয় পরিবারের লোকজন ও কতিপয় প্রতিবেশিদের নিয়ে বিষয়টি সমাধানের জন্য মোসলেমের বাড়ির উঠানে আলোচনার জন্য বসে। ঐ সময় মোসলেমের ছেলে মাসুদ অতর্কিতে তার চাচা নজরুলকে উপুর্যপুরি ছুরিকাঘাত করে। এসময় অপর ভাই ফজলু এগিয়ে আসলে তাকেও চুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। স্থানীয় লোকজনের সহয়োগিতায় আহতদেরকে হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়েছে। এব্যাপারে মধুপুর ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল আলিমের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, সংবাদ পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থালে এসে আহতদেরকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে পাঠাতে সহযোগিতা করেছি।

এব্যাপারে থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) কামাল হোসেন জানান, এ ঘটনায় নজরুলে স্ত্রী রুলী বেগম বাদি হয়ে ৬জনের নাম উল্লেখ করে মামলা দিয়েছে। এর মধ্যে ১ জনকে আটক করা হয়েছে।

থানার অফিসার ইনচার্জ জালাল উদ্দীন জানান, থানায় মামলা দায়েরের পর তাৎক্ষনিক ১ নং আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকি আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। আহত নজরুল ও ফজলু গ্রামের মৃত নই বক্স’র ছেলে।


Check Also

সোনাতলায় বিদ্যালয়ে অভিভাবক সদস্য পদে নির্বাচন সম্পন্ন

সোনাতলা (বগুড়া) প্রতিনিধি : বগুড়ার সোনাতলা উপজেলার জোড়গাছা ইউনিয়নের এনায়েত আলীর উচ্চ বিদ্যালয়ে অভিভাবক সদস্য …

Leave a Reply

Your email address will not be published.